1. editor@dailybogratimes.com : dailybogratimes. :
বিরামপুরে এক পা বিশিষ্ট সন্তানের জন্ম » Daily Bogra Times
Logo বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:২৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
মহাদেবপুরে বিষ প্রয়োগে চার বিঘা জমির ধান পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ আদমদীঘিতে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উৎযাপন বগুড়ার গাবতলীতে মারপিটে মা-ছেলে আহতঃ থানায় অভিযোগ পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটিতে স্থান পেলেন সংসদ সদস্য ড. জান্নাত আরা হেনরী  সারিয়াকান্দিতে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত গোবিন্দগঞ্জে অটোরিক্সা চালক দুলা মিয়া হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন  নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে হিলিতে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত  নওগাঁর আত্রাইয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত নওগাঁর আত্রাইয়ে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করণে এমপি সুমনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রংপুরে প্রখর রোদ, তীব্র গরম ও ঘনঘন লোডশেডিং-এ জনজীবন অতিষ্ঠ কাজিপুরে মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় মারধরের শিকার, থানায় অভিযোগ  ফুলবাড়ীর আঁখিরা গণহত্যা দিবস পালনগ ণহত্যার ৫৩ বছর পর প্রথম শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ নওগাঁয় কমেছে সবজির সরবরাহ, আলুর দামে আগুন পরিণীতির বিয়েতে আসেননি প্রিয়াঙ্কা, দুই বোনের সম্পর্কে ফাটল! পাঁচ টাকা কেজির ঢেঁড়স বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকায়

বিরামপুরে এক পা বিশিষ্ট সন্তানের জন্ম

এবিএম মুছা,বিরামপুর, দিনাজপুরঃ-
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ, ২০২৪
  • ২৩ বার পঠিত
বিরামপুরে এক পা বিশিষ্ট সন্তানের জন্ম
print news

বিরামপুর( দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে জমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক নারী। এদের মধ্যে এক নবজাতকের কেবল একটি পা রয়েছে । সেই পায়ে রয়েছে সাতটি আঙুল। নেই কোন মলদ্বার ও যৌনাঙ্গ।
বুধবার(২৭ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে পৌর শহরের মডার্ন হেলথ কেয়ার ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ওই শিশুর জন্ম হয়। প্রসূতি তাসলিমা বেগমের বাড়ি দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার শালখুরিয়া গ্রামে। তাসলিমার স্বামী মাহফুজুল ইসলাম পেশায় একজন ভ্যানচালক।
মডান ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপক সুমন চন্দ্র পাল বলেন, বুধবার বেলা তিনটার দিকে তাসলিমা বেগম নামে এক নারীকে তাঁর পরিবারের লোকজন সিজারিয়ান অপারেশনের জন্য ক্লিনিকে নিয়ে আসেন। শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বিকেল ৪টার দিকে ক্লিনিকের চিকিৎসক ও উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (মা ও শিশুস্বাস্থ্য) তাহেরা খাতুন ওই নারীর সিজারিয়ান অস্ত্রোপচার করেন। প্রথমে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। পরে দ্বিতীয় যে সন্তানের জন্ম হয়, তার একটি পা, মলদ্বার ও যৌনাঙ্গ নেই। এখন পর্যন্ত দুটি সন্তানই সুস্থ আছে।
এ বিষয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তাহেরা খাতুন বলেন, এ ধরনের শিশুর জন্ম সাধারণত জেনেটিক্যাল (জিনগত) সমস্যার কারণে হয়ে থাকে। অনেক ক্ষেত্রে গর্ভকালে শরীরে ফলিক অ্যাসিডের ঘাটতি বা রুবেলা ভাইরাসের প্রভাবেও এটি হতে পারে। এ ছাড়া ভাইরাল ইনফেকশনের কারণেও এ ধরনের ত্রুটিপূর্ণ শিশুর জন্ম হতে পারে।

তাহেরা খাতুন আরো বলেন, এ ধরনের শিশু সাধারণত বাঁচে না। শিশুটির উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুরের এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে শিশুর মা–বাবাকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

শিশুটির বাবা ভ্যানচালক মাহফুজুল ইসলাম বলেন, আমি গরিব মানুষ। ভ্যান চালিয়ে সংসারে চলে। যদি কোন দানশীল মানুষ আমাকে সাহায্য-সহযোগিতা করতো তাহলে শিশুটির চিকিৎসা করতে পারতাম।

এনাম হক / ডেইলি বগুড়া টাইমস

আরো খবর
https://dailybogratimes.com/
© All rights reserved by Daily Bogra Times  © 2023
Theme Customized BY LatestNews