1. editor@dailybogratimes.com : dailybogratimes. :
হাইপার টেনশন বা উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য ব্যায়াম » Daily Bogra Times
Logo সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১২:৩৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
প্রথম সিনেমা নিয়ে ঝামেলায় আমিরপুত্র কাতারে তৃতীয় দফায় জাতিসংঘের বৈঠকে অংশ নেবে আফগান সরকার বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত কোন দেশে কীভাবে পালিত হয় ঈদুল আজহা লালমনিরহাটে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে স্বামী -স্ত্রী নিহত ঈদের দিন নেপালকে হারিয়ে সুপার ৮ এ বাংলাদেশ বগুড়ায় ভুয়া ডিবি পুলিশ গ্রেফতার বুবলী দিচ্ছেন গরু কোরবানি, অপু ছাগল ঈদের দিন ঢাকাসহ দেশের যেসব অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা  সেন্টমার্টিন নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে, বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ: আইএসপিআর কোরবানির আগে ট্রিপল সেঞ্চুরি কাঁচা মরিচের, শসা মারলো সেঞ্চুরি পাবনায় কোরবানির গরু আনতে গিয়ে পদ্মায় ডুবে প্রাণ গেল কৃষকের ইদের ছুটিতে ঘুরে আসতে পারেন নৈসর্গিক পরিবেশের সরোবর পার্ক এন্ড রিসোর্টে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‌রুহুল আমিন সাইফুল

হাইপার টেনশন বা উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য ব্যায়াম

অনলাইন ডেস্ক
  • শনিবার, ১ জুন, ২০২৪
  • ১০ বার পঠিত
হাইপার টেনশন বা উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য ব্যায়াম
print news

উচ্চ রক্তচাপ রোগীদের ব্যায়ামের ধরণ :

বর্তমান সময়ে হাইপার টেনশন বা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা বহু মানুষের মধ্যে দেখা যাচ্ছে। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবনের পাশাপাশি খাদ্যভ্যাস ও শরীরচর্চার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া প্রয়োজন। কি ধরনের ব্যায়াম করবেন?

১. হাঁটা হাঁটি বা দৌড়ানো
২. সাইকেল চালানো
৩. সাঁতার কাটা
৪. খেলাধুলা করা
৫. বাগানে কাজ করা
৬. সিড়ি দিয়ে উঠা / হাইকিং
৭. নাচ

কতক্ষণ ব্যায়াম করবেন?

সপ্তাহে প্রতিদিন অথবা নূন্যতম ৫ দিন ৩০ মিনিট ব্যায়াম করতে হবে। একটানা ৩০ মিনিট ব্যায়াম করা সম্ভব না হলে ১০ মিনিট করে দিনে ৩ বার ব্যায়াম করেও সমান সুফল পাওয়া যাবে।

ব্যায়ামের সুফল কি?

আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজি অনুযায়ী মানুষের স্বাভাবিক রক্তচাপ ১২০/৮০ মি. মি. পারদ। নিয়মিত ব্যায়ামের ফলে সিস্টোলিক রক্তচাপ ৩ থেকে ৬ ইউনিট এবং ডায়াস্টোলিক রক্তচাপ ৪ থেকে ১২ ইউনিট পর্যন্ত হয়ে থাকে। ১ থেকে ৩ মাস নিয়মিত ব্যায়াম করার পরে এই সুফল লক্ষ্য করা যায় এবং যতদিন ব্যায়াম করা যায় ততদিন এই সুফল বজায় থাকে।

ব্যায়াম শুরু করার পূর্বে কখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন?

১. হার্টের কোন রোগ জানা থাকলে যেমন হার্ট অ্যাটাক 
২. যদি ফুসফুসে কোন রোগ থাকে 
৩. যদি পরিবারের পুরুষ সদস্যের ৫৫ বছর বা মহিলা সদস্যের ৬৫ বছর বয়সের পূর্বে হার্টের রোগ বা  হঠাৎ মৃত্যুর ইতিহাস থাকে।
৪. নিয়মিত ব্যায়াম করার অভ্যাস না থাকলে
৫. শারিরীক সুস্থতা সম্পর্কে আপনি যদি নিশ্চিত না থাকেন।
  
কি লক্ষণ দেখা দিলে ব্যায়াম বন্ধ করবেন?

১. বুকে, গলায়, চোয়ালে বা বাহুতে ব্যথা/ চাপ অনুভব করলে।
২. অতিরিক্ত / অস্বাভাবিক শ্বাসকষ্ট হলে
৩. মাথা ঘোড়ালে
৪. হৃৎস্পন্দন / হার্টবিট অনিয়মিত হলে

ব্যায়ামের অভ্যাস ধরে রাখার উপায়:

আমরা অনেকেই ব্যায়াম শুরু করি কিন্তু নানা কারণে ব্যায়ামের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারি না। এক্ষেত্রে নিচের উপায় গুলো আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

১. ব্যায়ামকে মজার করে তুলুন
২. দৈনন্দিন কাজের রুটিনের সাথে মিলিয়ে ব্যায়ামের জন্য সময় নির্বাচন করুন
৩. ব্যায়ামে কাউকে সঙ্গে নিন 

উচ্চ রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রণে ব্যায়াম করার জন্য জিম এ ভর্তি হওয়া বা দামী যন্ত্রপাতি কেনার প্রয়োজন নেই, উপরের যে কোন এক বা একাধিক ব্যায়াম নিয়মিত করবেন। ব্যায়াম খাদ্য-ভ্যাসের পাশাপাশি উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে রাখা উচিত। 

এনাম হক / ডেইলি বগুড়া টাইমস

আরো খবর
© All rights reserved by Daily Bogra Times  © 2023
Theme Customized BY LatestNews