1. editor@dailybogratimes.com : dailybogratimes. :
১৪ টাকা পিস ডিম, অসহায় ক্রেতা » Daily Bogra Times
Logo সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০২:১৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
প্রথম সিনেমা নিয়ে ঝামেলায় আমিরপুত্র কাতারে তৃতীয় দফায় জাতিসংঘের বৈঠকে অংশ নেবে আফগান সরকার বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত কোন দেশে কীভাবে পালিত হয় ঈদুল আজহা লালমনিরহাটে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে স্বামী -স্ত্রী নিহত ঈদের দিন নেপালকে হারিয়ে সুপার ৮ এ বাংলাদেশ বগুড়ায় ভুয়া ডিবি পুলিশ গ্রেফতার বুবলী দিচ্ছেন গরু কোরবানি, অপু ছাগল ঈদের দিন ঢাকাসহ দেশের যেসব অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা  সেন্টমার্টিন নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে, বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ: আইএসপিআর কোরবানির আগে ট্রিপল সেঞ্চুরি কাঁচা মরিচের, শসা মারলো সেঞ্চুরি পাবনায় কোরবানির গরু আনতে গিয়ে পদ্মায় ডুবে প্রাণ গেল কৃষকের ইদের ছুটিতে ঘুরে আসতে পারেন নৈসর্গিক পরিবেশের সরোবর পার্ক এন্ড রিসোর্টে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‌রুহুল আমিন সাইফুল

১৪ টাকা পিস ডিম, অসহায় ক্রেতা

নিউজ ডেস্কঃ-
  • শনিবার, ৮ জুন, ২০২৪
  • ১১৮ বার পঠিত
১৪ টাকা পিস ডিম, অসহায় ক্রেতা
print news

বাজারে সব পণ্যের দামই চড়া। নিত্যপ্রয়োজনীয় মালামাল কিনতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে মানুষকে। তব সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে ডিম। বর্তমানে বাজারে ডিমের দাম চলতি বছরের যেকোনো সময়ের চেয়ে সর্বোচ্চ।

শনিবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন তথ্য জানা গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, বাজারে ফার্মের মুরগির লাল ও সাদা ডিম প্রতি ডজন বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা। হালি বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকায়। আর একটি ডিমের দাম নেয়া হচ্ছে ১৪ টাকা। এছাড়া প্রতি ডজন হাঁসের ডিম ২০০ টাকা ও দেশি মুরগির ডিম ২৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ডিম কিনতে আসা এনায়েত মিয়া বলেন, মাছ, মাংস খাওয়ার সামর্থ্য নেই। ডিম খাওয়াও এখন দুরূহ হয়ে গেছে। এত দামে ডিম কেনা যায় না। প্রতিদিন নিরামিষ খেতে হচ্ছে।

বাজারের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় সবজি আলু। গত বছর থেকে আলুর দাম অস্বাভাবিকভাবে বেশি। এখন বাজারে প্রতি কেজি আলু ৬০ থেকে ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা কয়েকদিন আগেও ৫০ টাকা ছিল।

এদিকে ভারত থেকে আমদানির সুযোগ থাকলেও দেশে প্রতিদিন বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। গত এক সপ্তাহে কেজিতে ১৫ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৮৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ৭০ টাকা ছিল।

পেঁয়াজ বিক্রেতা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির সুযোগ থাকলেও ঐ দেশ ন্যূনতম রফতানিমূল্য ৫৫০ ডলার নির্ধারণ করে দিয়েছে। শুল্ক-করসহ এ পেঁয়াজ দেশে আনতে ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা খরচ হয়। এ কারণে কেউ পেঁয়াজ আমদানি করছে না। এতে বাজার শুধু দেশি পেঁয়াজের ওপর নির্ভর করেই চলছে।

পেঁয়াজের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তি আদা-রসুনের দামও। প্রতি কেজি আদা ও রসুন ২৪০ থেকে ২৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে বাজারে বিভিন্ন সবজিসহ তেল, চিনি ও আটার মতো অন্যান্য নিত্যপণ্য চড়া দামে আটকে রয়েছে।

এনাম হক / ডেইলি বগুড়া টাইমস

আরো খবর
© All rights reserved by Daily Bogra Times  © 2023
Theme Customized BY LatestNews